• ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কিশোর-তরুণদেরও বাড়ছে ডায়াবেটিস!

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত নভেম্বর ১৪, ২০২৩, ০৮:২৭ পূর্বাহ্ণ
কিশোর-তরুণদেরও বাড়ছে ডায়াবেটিস!

হাসান মিসবাহ, ঢাকাঃ মাত্র ১৩ বছর বয়সেই নিভে গেছে হৃদয়ের চোখের আলো। কোনো দুর্ঘটনা নয়, তার এ অবস্থার কারণ ডায়াবেটিস। চিকিৎসকেরা বলছেন, ডায়াবেটিস এখন আর শুধু বয়স্কদের রোগ নয়। স্বাস্থ্য বিভাগের জরিপে দেখা গেছে, ১৫ থেকে ৩৫ বছর বয়সীদের ৭ শতাংশ এই রোগে ভুগছে। শরীরচর্চার অভ্যাস কমে যাওয়া ও অস্বাস্থ্যকর খাবারই প্রধান কারণ, বলছেন চিকিৎসকেরা।

 

 

মায়ের মুখ খুব দেখতে ইচ্ছে করে হৃদয় হাওলাদারের। দেখতে ইচ্ছে করে সুন্দর পৃথিবী। কিন্তু ১৩ বছরের হৃদয়ের চোখের আলো কেড়ে নিয়েছে ডায়াবেটিস। বিকল হয়েছে একটি কিডনিও।

 

 

বারডেম হাসপাতালে হৃদয়ের পাশের বেডেই ভর্তি তরুণ নাইম ইসলাম রুবেল। ২৪ বছর বয়সেই যেন থমকে গেছে জীবন। রুবেলের সহায়তাকারী হাসপাতাল কর্মচারী জিয়া উদ্দীনও ডায়াবেটিসে ভুগছেন। তার বয়স ৩২।

 

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ডায়াবেটিক সমিতির গবেষণা বলছে, ১৫ থেকে ৩৫ বছর বয়সীদের ৭ দশমিক ৪ শতাংশ ডায়াবেটিসে ভুগছে। ৬১ শতাংশের নেই উপসর্গ। শহর ও গ্রামে রোগের প্রকোপ একই। নারীদের আক্রান্তের হার একটু বেশি।

 

 

 

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সীদের ৪ দশকিম ৪ শতাংশ, ২০ থেকে ২৪ বছর ৬ দশকিম ৭ শতাংশ, ২৫ থেকে ২৯ বছর ১১ দশকিম ৮ শতাংশ, ৩০ থেকে ৩৫ বছর ২১ দশকিম ৩ শতাংশ ডায়াবেটিসে ভুগছে।

 

 

 

এর মধ্যে পুরুষ  ৬ দশকিম ৯ শতাংশ, নারী ৭ দশকিম ৮ শতাংশ। অঞ্চলভিত্তিক ডায়াবেটিস পরিসংখ্যানে দেখা যায়, শহরে ৮ দশকিম ০ শতাংশ ও গ্রামে ৬ দশকিম ৬ শতাংশ কিশোর-তরুণ ডায়াবেটিসে ভুগছে।

 

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এনসিডিসি লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক রোবেদ আমিন বলেন, ‘তরুণ বা যুবকরা যে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, সেটি লক্ষণে বোঝা যায় না প্রায় ক্ষেত্রেই। সাধারণত অন্য রোগের চিকিৎসা করতে গিয়ে রক্ত পরীক্ষায় ধরা পড়ে সেটি।

 

 

চিকিৎসকেরা বলছেন, ৬০ থেকে ৭০ শতাংশের ক্ষেত্রেই ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করা যায়। জটিলতা এড়াতে বছরে অন্তত একবার ব্লাড সুগার পরীক্ষার পরামর্শ তাদের।

 

 

বাডাস সেন্টার ফর গ্লোবাল হেলথ রিসার্চের প্রকল্প পরিচালক ডা. বিশ্বজিত ভৌমিক বলেন, ‘কিশোর–তরুণরা এখন খেলাধুলা বা কায়িক শ্রম কম করে, তারা ফাস্টফুডে আসক্ত, সেই সঙ্গে মোবাইল, ইন্টারনেটে সময় কাটাচ্ছে বেশি। অলস জীবনযাপন, খাওয়া–দাওয়ায় অনিয়ম, টেনশন-এগুলোর জন্যই রোগটি হতে পারে।

 

 

রোগ নিয়ন্ত্রণে আগামী এক বছরে এক কোটি মানুষের বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করবে স্বাস্থ্য বিভাগ।