• ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তপশিল ঘিরে ৬ ইসলামি দলের বৈঠক

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত নভেম্বর ১৪, ২০২৩, ১৮:৩০ অপরাহ্ণ
তপশিল ঘিরে ৬ ইসলামি দলের বৈঠক

নির্বাচনকালীন দলনিরপেক্ষ সরকারের ব্যবস্থা না করে তড়িঘড়ি জাতীয় নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে সমমনা ৬টি ইসলামী দল।

 

 

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে সমমনা ইসলামী দলসমূহের নেতারা এ দাবি জানিয়ে বলেন, রাজনৈতিক সমঝোতা ছাড়া তড়িঘড়ি তপশিল ঘোষণা হবে জাতির সাথে তামাশার শামিল। এ তামাশা বন্ধ করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।

 

 

তারা বলেন, দেশে চলমান সংঘাত-সহিংসতার একমাত্র সমাধান হচ্ছে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন। কিন্তু সরকার জনগণের এ দাবির তোয়াক্কা না করে একতরফা নির্বাচনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এতে পরিস্থিতি আরো অবনতি হবে। সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করছে। শক্তি প্রয়োগ করে, গ্রেপ্তার, নির্যাতন, জেল, জুলুমের মাধ্যমে বিরোধী কণ্ঠকে স্তব্ধ করে দিতে চায়। এর মধ্য দিয়ে দেশকে অনাকাঙ্ক্ষিত অনিশ্চয়তার দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আলেম-ওলামাসহ সাধারণ মানুষও হয়রানির শিকার হচ্ছে।

 

তারা আরও বলেন, সরকারকে জেল, জুলুম, হামলা, মামলার আর পেশীশক্তির খেলা বন্ধ করতে হবে। রাজনৈতিক দল ও জনগণের মতামতকে উপেক্ষা করে নির্বাচন কমিশন তড়িঘড়ি করে একতরফা নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা করলে জাতি তা মেনে নিবে না।

 

বৈঠকে বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেপ্তার বন্ধ ও মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা মুনির হোসাইন কাসেমীসহ সকল আলেম-উলামা ও কারাবন্দি বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করা হয়। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের গণদাবী না মেনে তপশিল ঘোষণা করা হলে সমমনা দলসমূহের পক্ষ থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

 

 

 

বিকাল ৩টায় পল্টনস্থ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের আমীরে মাওলানা আবদুল বাছিত আজাদের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহসভাপতি মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী, মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, বাংলাদেশে খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমির মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন, মাওলানা মাহবুবুল হক, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নাজমুল হাসান, খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, অধ্যাপক আবদুল জলিল, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মুফতি শরাফত হোসাইন, মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী, খেলাফত আন্দোলনের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, নেজামে ইসলাম পার্টির প্রচার সম্পাদক মাওলানা আবদুল্লাহ আল মাসুদ, খেলাফত মজলিসের প্রচার ও তথ্য সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, যুব বিষয়ক সম্পাদক তাওহিদুল ইসলাম তুহিন, অধ্যাপক মাওলানা আজিজুল হক প্রমুখ।