• ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রবাসীদের মানবিক সহযোগিতা করতে অভিবাসী পরিষদ গঠন : সদস্য সচিব মুন্না- দেলোয়ার আহ্বায়ক

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত ডিসেম্বর ২৬, ২০২৩, ১৯:৫২ অপরাহ্ণ
প্রবাসীদের মানবিক সহযোগিতা করতে অভিবাসী পরিষদ গঠন : সদস্য সচিব মুন্না- দেলোয়ার আহ্বায়ক

প্রবাসীদের দেশে-বিদেশে নানা রকম হয়রানি, বঞ্চনার অভিযোগ অনেক দিনের হলেও তাদের জন্য সহযোগিতা মূলক কোন সংগঠন গড়ে উঠেনি দীর্ঘদিনে। দেশের মাটিতে বা প্রবাসের মাটি কোনটিতেই মানবিক সহযোগিতা পায়নি দেশের সূর্য সন্তান রেমিট্যান্স যোদ্ধারা, বরং তাদের’কে ব্যবহার করে হাজার কোটি টাকার মালিক বনেছে কিছু নামধারী লেজুড়বৃত্তিক সংগঠন বা সংস্থা। প্রবাসীদের এই ক্ষোভ-বিক্ষোভ থেকে নিজেদেরকে আত্মরক্ষা ও মানবিক অধিকার সুরক্ষা জন্য সম্প্রতি আত্মপ্রকাশ করেছে প্রবাসী অধিকার পরিষদ।

 

 

 

 

প্রবাসীদের বিভিন্ন দাবী আদায়ে পাশে থাকার অঙ্গীকার নিয়ে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরের তত্বাবধানে বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ নামে একটা আন্তর্জাতিক সংগঠন গড়ে ওঠে কয়েক বছর আগে। যার প্রধান উপদেষ্টা হলেন নুরুল হক নুর। কিন্তু কয়েক মাস আগে ভিপি নুরের দল বাংলাদেশ গন অধিকার পরিষদের তৎকালীন আহবায়ক ড. রেজা কিবরিয়াসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের প্রেরিত অনুদান, অর্থ সাহায্য আত্মসাৎ এর অভিযোগ উঠে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে। ফলশ্রুতিতে গন অধিকার পরিষদই ভিপি নুর গ্রুপ ও ড. রেজা কিবরিয়া গ্রুপে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ে। এর প্রভাব পড়ে বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের উপরে।

 

 

 

 

প্রবাসীদের মধ্যে রাজনৈতিক নেতৃত্বের তাবেদারি না করে প্রবাসীদের বিভিন্ন দাবি দাওয়া আদায়ে সংগঠিত থাকার প্রয়োজনীয়তা সামনে রেখে দীর্ঘদিন সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা প্রবাসীদের জন্য একটি স্বতন্ত্র, অরাজনৈতিক ও আন্তর্জাতিক সংগঠন গড়ে তুলতে একমত হন এবং নুর গ্রুপ রেজা কিবরিয়া গ্রুপ কোন গ্রুপেরই সাথে সংশ্লিষ্ট না থাকার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বিভিন্ন মতামত ও আলোচনার ভিত্তিতে গত ৪ ডিসেম্বর ইউ কে প্রবাসী সাবেক ছাত্রনেতা দেলোয়ার হোসাইন সৈয়দকে আহ্বায়ক ও সৌদি আরব প্রবাসী ফজলুল হক মুন্নাকে সদস্য সচিব করে সম্পূর্ন অরাজনৈতিক সংগঠন “বাংলাদেশী প্রবাসী ও অভিবাসী পরিষদ” এর ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষিত হয়।

 

 

 

 

আহবায়কঃ দেলোয়ার হোসেন সৈয়দ (ইউ.কে) যুগ্ম আহ্বায়ক বৃন্দঃ মোঃ অলি হোসাইন তালুকদার (ডেনমার্ক), জাফর চৌধরী (আমেরিকা), মাহবুবুল করিম সুয়েদ (ইউ.কে), শাকিল আদনান (সৌদি আরব), আরিফ রশিদ (কানাডা), ইমরান সাদিক আদনান (পর্তুগাল), মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন (ইউ.কে), সোহাগ মাহমুদ সাইফ (সুইডেন), মাওলানা ফরিদউদ্দিন মজনু (ইউ,কে), দেলোয়ার রাজা চৌধুরী দারা (স্পেন), এনাম আহমেদ (ইউ.এ.ই), সদস্য সচিবঃ ফজলুল হক মুন্না (সৌদি আরব) যুগ্ম সদস্য সচিববৃন্দঃ মজহারুল ইসলাম শাকিল (কুয়েত), শাহ আজম স্বাগর (মালয়েশিয়া), শাহদাৎ হোসেন (জার্মানি), কামাল পাশা (ওমান), জুলহাস সিকদার (মালদ্বীপ), মিস হেলেন বেগম (ইউ.কে), আলাল আহমদ জীবন (সৌদি আরব), হাফেজ মাওলানা আবদুর রহমান চৌধুরী (অর্থ) (ইউ.কে), অনুপম রাজিব (ইউ.কে), ইঞ্জিনিয়ার নাজমুল হাসান (ইউ.এ.ই), রুবেল আহমেদ (পর্তুগাল) সদস্যবৃন্দঃ মাওলানা রুহুল আমিন (ইউ.কে), আবদুল হক চৌধুরী (সৌদি আরব), মোহাম্মদ শিবলু তালুকদার (ফ্রান্স), অনিক চৌধুরী (মালয়েশিয়া), মুজাহিদ খান (ইউ.কে), সেলিম খান (সৌদি আরব), সৈয়দ শাহরিয়ার হোসেন (কানাডা), মনিরুজ্জামান খান (ইউ.কে), জোবায়ের হোসেন (ফ্রান্স), আবদুল মুকসিত চৌধুরী রাজিব (ইউ এস এ), জুয়েল শফিকুল (সিংগাপুর), মোঃ শামীম আহমেদ (মালদ্বীপ), মোঃ জাকির হসেন (ইটালি/ইউ.কে), হুমায়ুন খান (ইউ.কে),মোহাম্মদ লুতফুর হোসেন (ইউ.এস.এ), তাজুল ইসলাম নিটু (ইউ.কে), আশরাফ জনি (ইটালি/ইউ.কে), এম এন আহমেদ নানু (ইউ.কে), মোঃ আজমত কাজী (ইটালি/ইউ.কে),মুজিবুর রহমান (স্পেন), তারেক আহমেদ (ইউ. কে), শাহদাৎ খান (ইউ.এস এ), ইবাদ চৌধুরী (কানাডা), মোহাম্মদ সুমন (বাহরাইন), ডাঃ তাজুদ ইসলাম (ইউ.কে), মেহেদী হাসান (সৌদি আরব)সহ ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করে সংগঠনের আত্মপ্রকাশ হয়।